দ্বীনের নসীহত

ইসলামী আলোয় আলোকিত হোক জীবন

আজ যারা বাংলাদেশে ঈদ পালন করেছেন, তাদের সমীপে জরুরী নিবেদন

unnamed
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আজ যারা এদেশে ঈদ পালন করেছেন, তাদের সমীপে জরুরী নিবেদন

মুফতী আবুল হাসান শামসাবাদী
————————————————————————-

আজ যারা বাংলাদেশে চাঁদ উদিত না হওয়া সত্ত্বেও ঈদুল ফিতরের নামায পড়েছেন এবং ঈদ উদযাপন করেছেন, তারা কবীরা গুনাহ ও হারাম কাজ করেছেন।

কারণ, তারা মাহে রামাজানের একটি রোযা ইচ্ছাপূর্বক নষ্ট করার কারণে কবীরা গুনাহে মারাত্মক গুনাহগার হয়েছেন। অধিকন্তু তাদের এ ঈদের নামায
কিছুতেই সহীহ হবে না। কেননা, তা ওয়াক্ত হওয়ার পূর্বে নামায পড়ার মতো যেমন–ইশার সময় ফজরের নামায পড়ে নিলো। যা কখনো সহীহ হবে না

তাই এদেশে চাঁদ উঠার পর আগামীকাল তাদের জন্য আবার ঈদের নামায পড়া ওয়াজিব হবে। আর তখন ঈদের নামায না পড়লে তারা আবার ওয়াজিব তরকের কারণে গুনাহগার হবেন।

উল্লেখ্য, এক্ষেত্রে তারা সৌদী আরবের সাথে ঈদ পালনের দাবী করেন। অথচ সেই দাবী সম্পূর্ণ মিথ্যা দাবী। কারণ, আজ রবিবার এদেশে ঈদ গণ্য করতে হলে, গতকাল দিবাগত সন্ধ্যায় সূর্যাস্তের সাথে সাথে এদেশে ঈদের কার্যক্রম তথা ঈদরাত্রি শুরু হবে। অথচ তখন সৌদী আরবে তার পূর্বের দিন (তথা ঈদরাতের পূর্বের দিনের জোহরের ওয়াক্ত বিদ্যমান) এবং বার হিসেবে তা শনিবার। সুতরাং তাদের পূর্বে ঈদরাত শুরু করার দ্বারা কখনো তাদের অনুগামী হওয়া সাব্যস্ত হবে না। তদুপরি এদেশে যখন সকাল ৭টায় তারা ঈদের নামায পড়ছেন, তখন সৌদী আরবে রাত ৪টা বাজে। সুতরাং তাদের এ নামায সৌদী আরবের অনুগামী হতেই পারে না। বরং সৌদী আরবের সাথে সাথে অথবা তাদের পরে সেই কাজ করলে তাকে অনুগামী ধরা হবে, অন্যথায় নয়।

সে হিসেবে সৌদী আরবে চাঁদ উঠার পর তার সেদিনের মধ্যে বা তার ২৪ ঘন্টার ভিতরে আমাদের দেশে চাঁদ উঠা গণ্য করলে এবং সে ভিত্তিতে ঈদ উদযাপন করা হলে, তখনই কেবল সৌদী আরবের অনুগামী হওয়া সাব্যস্ত হবে। সেরূপে সৌদীতে চাঁদ উঠার পর আমাদের দেশের আজকের সন্ধ্যা তার অনুগামী হয়। তাই এদেশে সে নিয়মে পরদিন সোমবার ঈদ পালন করলে তা সৌদী আরবের সেই দিনের বা তার ২৪ ঘন্টার ভিতরে হয়ে এদেশের আমল সৌদী আরবের অনুগামী হবে। পরন্তু এদেশে চাঁদ দেখার কারণে শরয়ীভাবে (চাঁদ দেখে) ঈদ পালন করা বিধিমতো সঠিক হবে। সুতরাং এদেশের জন্য এটাই পালনীয় কর্তব্য।

সুতরাং আজ যারা এদেশে ঈদ উদযাপন করেছেন, তাদের প্রতি নিবেদন করছি–আপনারা তাওবা করে ইসলামের সঠিক পথে ফিরে আসুন। তারা ঈদের পর আজকের রোযার কাজা আদায় করে নিবেন। আর এদেশের হিসেবে আগামীকাল পুনঃ ঈদ উদযাপন করবেন এবং ঈদের নামায আদায় করবেন।

আল্লাহ তা‘আলা সবাইকে সহীহ বুঝ দান করুন। আমীন।


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •