দ্বীনের নসীহত

ইসলামী আলোয় আলোকিত হোক জীবন

মাওলানা সাদ অনুসারীদের কাকরাইল মারকাজ ছাড়ার নির্দেশ দিল পুলিশ

সাদ সাহেব
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

তাবলিগ জামাতের বিতর্কিত আমির মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীদের আগামীকাল বুধবারের মধ্যে রাজধানীর কাকরাইলের মারকাজ ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী এখন মারকাজে উঠবেন তাবলীগের আলমী শূরার অনুসারীগণ।

ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মাওলানা সাদের অনুসারীরা কাকরাইল মারকাজে দুই সপ্তাহ অবস্থান করেন। আর আলমী শূরার অনুসারীরা অবস্থান করেন চার সপ্তাহ।

সাদ অনুসারীদের দুই সপ্তাহের সময়সীমা ২৫ মার্চ সরকারি ছুটি ঘোষণার সময়ই শেষ হয়ে যায়। তারপরও করোনাভাইরাসের কারণে বিশেষ পরিস্থিতির সৃষ্টি হওয়ায় তাঁদের থাকতে দেওয়া হয়। এখন আলমী শূরার অনুসারীরা মারকাজে উঠতে চাচ্ছেন। দুই সপ্তাহ আগে দুই পক্ষকে ডেকে আনা হয়েছিল। তারা বসেই মারকাজ ছেড়ে দেওয়ার সময়সীমা নির্ধারণ করেছে।

আলমী শূরার অনুসারীদের মুরব্বি মো. আলমগীর হোসেন জানান, তাঁদের শতাধিক বিদেশি অতিথি যাত্রাবাড়ির মদিনা মসজিদে অবস্থান করছেন। সেখানে থাকার ব্যবস্থা ভালো না। দীর্ঘদিন ধরে তাঁরা কষ্ট করে আছেন। এ জন্য তাঁদের মারকাজে সরিয়ে আনতে চাচ্ছেন তাঁরা। এ ছাড়া সাদ অনুসারীদের মারকাজে থাকার সময়সীমাও শেষ।

মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীদের মুরব্বি ওয়াসিফুল ইসলাম বলেন, নির্ধারিত সময়ের চেয়ে বেশি দিন মারকাজে অবস্থান করার কোনো বাসনা তাঁদের ছিল না। কিন্তু বিদেশি অতিথিদের জন্যই তাঁরা রয়ে যান।

বিদেশী সাথীদের স্বার্থে সাদ অনুসারীদের মুরব্বি ওয়াসিফুল ইসলাম বলেন, কাকরাইল মাদ্রাসাটি এখন বন্ধ থাকায় সেখানে অন্তত তিনটি তলা ফাঁকা রয়েছে। যাত্রাবাড়ির মসজিদে থাকা বিদেশি অতিথিদের সেখানে অনায়াসেই রাখার ব্যবস্থা করা সম্ভব। এই ব্যবস্থা হলে কোনো পক্ষের বিদেশি অতিথিদেরই সমস্যায় পড়তে হয় না।

সুত্রঃ রাহবার ২৪.com

 


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •